১৪ জুলাই ২০১২, রবিবার, ১০:০২:৫২ পূর্বাহ্ন


নিউইয়র্ক বইমেলায় হাবিব রহমানের নতুন বই ‘অস্ট্রেলিয়ার পথে প্রান্তরে’
দেশ ডেস্ক
  • আপডেট করা হয়েছে : ০৬-০৭-২০২৩
নিউইয়র্ক বইমেলায় হাবিব রহমানের নতুন বই ‘অস্ট্রেলিয়ার পথে প্রান্তরে’ হাবিব রহমানের বইয়ের প্রচ্ছদ


নিউইয়র্ক বাংলা বইমেলা ২০২৩ উপলক্ষ্যে প্রকাশিত হয়েছে যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী, বিশিষ্ট সাংবাদিক হাবিব রহমানের ভ্রমণ কাহিনী “অস্ট্রেলিয়ার পথে প্রান্তরে”।বইটি প্রকাশ করেছে বাংলাদেশে সৃজনশীল গ্রন্থের অন্যতম প্রকাশনা সংস্থা নালন্দা প্রকাশনী।

অস্ট্রেলিয়ার পথে প্রান্তরে হাবিব রহমানের ভ্রমণ বিষয়ক তৃতীয় বই। আলোচ্য বইটি তার অস্ট্রেলিয়া ভ্রমণের উপর ভিত্তি করে লেখা। ভ্রমণ সাহিত্য পাঠককে কল্পরাজ্যে নিয়ে যায়। এই রাজ্যের অধীশ্বর লেখক নিজে। তিনি যেভাবে চাইবেন, যেভাবে ছবি আঁকবেন পাঠক তাই দেখতে পাবেন। এজন্য লেখককে থাকতে হয় খুবই সচেতন। যেহেতু এই লেখা  ভবিষ্যতে  ইতিহাসের একটি দলিল হিসাবে বিবেচিত হবে সেজন্য থাকতে হয় বর্ণনায় স্বচ্ছতা আর দৃষ্টি ভঙ্গির নিরপেক্ষতা। ”অস্ট্রেলিয়ার পথে প্রান্তরে” বইতে লেখক সে শর্ত পুরণ করেছেন যেজন্য বইটি সুখপাঠ্য হয়েছে।

ভ্রমণ সাহিত্যে ভাষার মারপ্যাঁচ  বা শব্দ বিন্যাসের কারুকাজ ততটা আবশ্যিক নয়। ঘটনার বর্ণনাটাই এখানে মুখ্য। সহজ ভাষায় পাঠকের কাছে বোধগম্য করে তোলাও এক ধরনের মুন্সিয়ানার কাজ। হাবিব রহমান সেদিক থেকেও স্বার্থক। সাবলীল ভাষায় নিজের মত করে তিনি ঘটনার পারিপারশ্বিকতার বর্ণনা তুলে ধরেছেন। যেকোন সাধারণ পাঠকও তাতে আকৃষ্ট হবেন।

উল্লেখ্য, এবছর ঢাকায় একুশের বই মেলা উপলক্ষ্যে “ঘুরে দেখা ইউরোপ”এবং “আফ্রিকার দেশে দেশে” নামে তাঁর লেখা আরো দুটি ভ্রমণ কাহিনী প্রকাশিত হয়েছে। ”ইউরোপের দেশে দেশে” বইটিতে ইউরোপের গুরুত্বপূর্ণ বেশ অনেকগুলি দেশে তাঁর ভ্রমণের অভিজ্ঞতা সংকলিত হয়েছে যেগুলো ঐতিহাসিক ও সামাজিক সাংস্কৃতিক তথ্যে ভরপুর। যারা দেশ ভ্রমণে আগ্রহী তাদের ক্ষেত্রে বইটি চমৎকার গাইড বুক হিসাবে ভূমিকা রাখবে। মিশর ও মরক্কো  সফরের ঘটনাবলি নিয়ে প্রকাশিত হয়েছে তার ভ্রমণ বিষয়ক বই “আফ্রিকার দেশে দেশে”। তাঁর এ লেখা কোনো তত্ত্বভারাক্রান্ত ঐতিহাসিক বিবরণ নয়। এ লেখা সহজ সরল ভাষায় অন্তরঙ্গভাবে বলে যাওয়া তাঁর দেখা অভিজ্ঞতাগুলি। তার লেখায় ঐতিহাসিক সব স্থানের বর্ণনা আছে, আছে পিরামিড-স্ফিংস দেখার শিহরণ, আছে আল-আজহার বিশ্ববিদ্যালয়, আলেকজান্দ্রিয়ার কথা, মরক্কোর ক্যাসাব্রাংকা, তানজিয়ার ও জিব্রালটারের কথা। তবে সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য বিষয় হচ্ছে, এই বইয়ে তিনি লিখেছেন এ দুটি দেশের মানুষের কথা। এইসব মানুষের মধ্যে তিনি যেমন সততা দেখেছেন তেমনি দেখেছেন শঠতা। পাঠকরা খুব ঘনিষ্ঠভাবে জানার সূযোগ পাবেন এই দুই দেশের সংস্কৃতিকে। আস্বাদ পাবেন দেশ দুটির নানা ধরনের খাদ্যসামগ্রীর।

সাপ্তাহিক বাংলা পত্রিকার বার্তা সম্পাদক, বিশ্ব পরিব্রাজক হাবিব রহমানের ঘুরে বেড়ানোর নেশা সেই কিশোর বয়স থেকে। একজন পরিব্রাজক এবং ট্যুর অপারেটর হিসাবে তিনি নিয়মিত পদচারণা করেন বিশ্বের পাঁচ মহাদেশের শতাধিক দেশে। এসব দেশ ঘুরতে গিয়ে তিনি দুচোখে যা দেখেছেন  মনের ক্যামেরায় বন্দী করে তা উপহার দিয়েছেন  পাঠকের কাছে। তাঁর ভ্রমণ বিষয়ক তিনটি বই-ই পাওয়া যাবে নিউইয়র্ক বই মেলায় মুক্তধারা এবং নালন্দার বুক স্টলে। প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

শেয়ার করুন