০৪ মার্চ ২০১২, সোমবার, ০৯:১৭:১০ অপরাহ্ন


অন্তত দুই সপ্তাহ আটক না করার নি ের্দশনা
ইমরান খান জামিনে মুক্ত
দেশ রিপোর্ট
  • আপডেট করা হয়েছে : ১২-০৫-২০২৩
ইমরান খান জামিনে মুক্ত


ইসলামাবাদের হাইকোর্ট আজ শুক্রবার সাবেক প্রধানমন্ত্রী ওই পিটিআই প্রধান ইমরান খানকে জামিন দিয়েছে। দুর্নীতির মামলায় গ্রেপ্তার হওয়া ইমরান খানকে দুই সপ্তাহের জন্য অব্যাহতি দিয়ে ওই জামিন দেয়া হয়। সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের আইনজীবী বাবর আওয়ান বলেছেন, সুপ্রিম কোর্ট রায় দেওয়ার একদিন পর শুক্রবার আদালত এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। তিনি বলেন, ইমরান খান এখন ‘মুক্ত মানুষ’ এবং আদালতের এ রায় ন্যায়সঙ্গত।

ইমরান খানকে আদালতে উপস্থিত করার পর তাকে ফের পুলিশ হেফাজতে ফিরিয়ে নেওয়া হবে, নাকি তাকে জামিন দেওয়া হবে তা নিয়ে জল্পনা শুরু হয়। আদালতের এই রায়ের পর কয়েকদিন ধরে সরকার এবং সাবেক এ প্রধানমন্ত্রীর সমর্থকদের মধ্যে চলা সহিংস সংঘর্ষ প্রশমিত হয়। ৭০ বছর বয়সী সাবেক প্রধানমন্ত্রী দেশটির একজন জনপ্রিয় বিরোধী নেতা। গত মঙ্গলবার একই আদালতে তিনি হাজির হয়েছিলেন একটা হাজিরা দিতে। সেখান থেকে তাকে টেনে নিয়ে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল।  

ইমরান খানকে গ্রেপ্তারের পর থেকেই গোটা পাকিস্তান জুড়ে তান্ডব শুরু হয়। চলে বিক্ষোভ। ভাংচুর। নরকীয় তান্ডব। তার সমর্থকরা সামরিক স্থাপনায় হামলা চালায়, যানবাহন ও অ্যাম্বুলেন্স পুড়িয়ে দেয় এবং দেশের বিভিন্ন স্থানের ডিপার্টমেন্টাল ও তছনছ করে। এর প্রতিক্রিয়ায় সরকার প্রায় তিন হাজার মানুষকে গ্রেপ্তার করে। শুক্রবারের আদালতের অধিবেশন জটিল আইনি কৌশলের একটি সিরিজের অংশ। এর আগে বৃহস্পতিবার পাকিস্তানের সুপ্রিম কোর্ট ঘোষণা করেন, খানের গ্রেপ্তার বেআইনি ছিল, কিন্তু তারপরেও ইসলামাবাদ হাইকোর্ট একটি নিম্ন আদালতকে গ্রেপ্তার বহাল রাখার প্রাথমিক সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনা করতে বলেছিলেন। সুপ্রিম কোর্ট বলেছেন, শুক্রবার ইসলামাবাদের আদালত যা রায় দেবে তা তারা মেনে নেবেন। সরকার বলেছে, ইসলামাবাদ হাইকোর্ট তার আগের আদেশ বহাল রাখলে তারা ফের দ্রুত ইমরান খানকে গ্রেপ্তার করবে।

শুক্রবার ইসলামাবাদ আদালতের একটি প্রাথমিক সংক্ষিপ্ত অধিবেশনে, বিচারকরা দুর্নীতির অভিযোগে গ্রেপ্তার থেকে সুরক্ষা চেয়ে খানের একটি অনুরোধের শুনানি করেন। আদালত কক্ষে খানের সমর্থকরা স্লোগান দেওয়ায় বিচারক অধিবেশন দুই ঘণ্টার জন্য স্থগিত করেন।

এর আগে বৃহস্পতিবার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেছেন, ইমরান খানকে দুর্নীতির মামলায় জামিন দেওয়া হলেও অন্যান্য অভিযোগে তাকে গ্রেপ্তার করতে পারেন তিনি। সরকারের দাবি, খানের মুক্তি জনতার সহিংসতাকে উৎসাহিত করবে। শুক্রবার আদালতে ইমরানের  প্রধান আইনজীবী বাবর আওয়ান সাংবাদিকদের বলেন, সরকার, প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রীকে গ্রেপ্তার করতে এখনও অনড় বলে ধারনা করা হচ্ছে।

এদিকে জামিনে মুক্তির পর ইমরান খান বলেন, তার সঙ্গে তদন্তকারী অফিসাররা ভাল ব্যবহার করেছেন। তবে তাকে আটকের সময় মাথায় আঘাত করা হয়েছিল বলে তিনি অভিযোগ তোলেন। 


শেয়ার করুন