১৪ জুন ২০১২, শুক্রবার, ০৫:৫৮:৪৪ অপরাহ্ন


‘বেটউইনার নিউজ’ এর সঙ্গে বিতর্কিত চুক্তির কারনে ক্ষমা চেয়েছেন সাকিব
টি-২০ তে সাকিব অধিনায়ক
নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেট করা হয়েছে : ১৩-০৮-২০২২
টি-২০ তে সাকিব অধিনায়ক


টি-২০ ক্রিকেটে শেষ পর্যন্ত সাকিবের উপরই ভরসা করলো বিসিবি। অষ্ট্রেলিয়ায় অনুষ্টিতব্য বিশ্বকাপ পর্যন্ত সাকিব আল হাসানই বাংলাদেশ টি-২০ স্কোয়াডের অধিনায়ক। আসন্ন এশিয়া কাপ টি-২০ টুর্নামেন্টেও সাকিব ক্যাপ্টেনসী করবেন। 

বিভিন্ন ইস্যু নিয়ে সাকিবের সঙ্গে দীর্ঘ আলোচনা করে  সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন সহ বোর্ডের অন্যান্য কর্তা। ওই মিটিং শেষে ক্রিকেট অপারেসন্সের চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস সাংবাদিকদের দেন ওই তথ্য। একই সঙ্গে প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদী নান্নুও এশিয়া কাপের স্কোয়াড ঘোষনা দেন। এতে দলে ফিরেছেন সাইফুদ্দিন। 

অবশ্য বিসিবি চেয়েছিল সাকিবকে আগামী দুই বছরের জন্য অধিনায়কত্বে। কিন্তু বেটউইনার নিউজ নামে একটি ওয়েবসাইটের সঙ্গে সাকিবের বিতর্কিত চুক্তির কারনে ঘটে যাওয়া নানা কারনে শেষ পর্যন্ত আগামী বিশ্বকাপ পর্যন্ত ওই সিদ্ধান্ত। সাকিব অবশ্য ওই চুক্তি বাতিল করে দিবেন বলে জানান দেয়ার পর বিসিবি তাকে এশিয়া কাপ থেকেই বিবেচনা করে। এবং অধিনায়কও করেন। সাকিব বিসিবিকে জানিয়েছেন তিনি বাংলাদেশের ক্রিকেটের সাথেই থাকবেন।   

বিসিবি’র ক্রিকেট অপারেসন্সের চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস বলেছেন, ‘সাকিব আল হাসান এশিয়া কাপ, ত্রিদেশীয় সিরিজ এবং টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ পর্যন্ত অধিনায়ক নির্বাচিত হয়েছেন। বোর্ডে আমাদের একটি মিটিং ছিল। সেখানেও আমরা আলোচনা করেছি। এরপর প্রেসিডেন্টের বাসায় এসে আলোচনায় বসেছি। এখানে নির্বাচকেরা ছিলেন। এই কয়েকটি আসরের জন্য আমরা সাকিবকে অধিনায়ক হিসেবে বিবেচনা করা হয়েছে।’

তিনি আরো বলেণ, ‘সাকিব তাঁর ভুল স্বীকার করেছেন এবং ভবিষ্যতে আর এ রকম বিতর্কে জড়াবেন না বলে তাঁদের আশ্বস্ত করেছেন, ‘এটা নিয়ে অনেক আলাপ আলোচনা হয়েছে। সাকিব তার ভুল বুঝতে পেরেছেন। তার আসলে এটার সঙ্গে যুক্ত হওয়া ঠিক হয়নি। নিশ্চিতভাবে সাকিব আমাদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ একজন ক্রিকেটার। বোর্ডের আগের মিটিংয়ে সাকিবকে অধিনায়ক করার চিন্তা ভাবনা ছিল। এখন আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি আমরা সেই পরিকল্পনায় স্থির থাকব।’ 


সাকিবকে দলের সেরা খেলোয়াড় বলে জালাল ইউনুস যোগ করেন, ‘সে আমাদের সেরা খেলোয়াড়। সে বলেছে, সামনে এমন কোনো ভুল হবে না। সে আশ্বাস দিয়েছে আমাদের বোর্ড সভাপতির সামনে, আমরা সেটা মেনে নিয়েছি।’ 

আসন্ন এশিয়া কাপে বাংলাদেশ দলে আরো যারা রয়েছেন: এনামুল হক বিজয়, মুশফিকুর রহিম, আফিফ হোসেন, মোসাদ্দেক হোসেন, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, শেখ মেহেদী, মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন, হাসান মাহমুদ, মোস্তাফিজুর রহমান, নাসুম আহমেদ, সাব্বির রহমান, মেহেদী হাসান মিরাজ, ইবাদত হোসেন, পারভেজ হোসেন, তাসকিন আহমেদ ও নুরুল হাসান সোহান।



শেয়ার করুন