১৪ জুন ২০১২, শুক্রবার, ০৬:০৮:২৯ অপরাহ্ন


এশিয়া কাপে নিজস্ব শেষ ম্যাচে ৬ রানে জয়
ভারতকে হারিয়ে স্বস্থির জয় বাংলাদেশের
নিজস্ব প্রতিনিধি
  • আপডেট করা হয়েছে : ১৫-০৯-২০২৩
ভারতকে হারিয়ে স্বস্থির জয় বাংলাদেশের ভারতের শেষ ব্যাটসম্যান সামিকে আউটের পর জয়ের আনন্দে নেচে ওঠে টিম বাংলাদেশ/ছবি সংগৃহীত


সন্মানরক্ষা বা নিয়মরক্ষা যেটাই হোক না কেন ভারতকে হারানোর মর্যদা একটু অন্যরকমই। বাংলাদেশ এশিয়া কাপের বিদালগ্নে সেই যোগ্যতাই অর্জনে সক্ষম হয়েছে। হারিয়ে দিয়েছে ক্রিকেট বিশ্বের পরাশক্তি ভারতকে ৬ রানে। বাংলাদেশ এ ম্যাচে ব্যাটিং বোলিং ও ফিল্ডিং প্রতিটা ডিপার্টমেন্টেই উন্নত নৈপুন্য দেখিয়ে সফলতা দেখিয়েছে।


ফাইনাল নিশ্চিত হওয়ার পর ভারত যেমন সাইট লাইনের কয়েকজনকে খেলিয়েছে, ঠিক বাংলাদেশও। মুশফিক, তাসকিন খেলেনি এ ম্যাচে। উপরন্তু বাংলাদেশের হয়ে ওয়ানডেতে অভিষেক ঘটেছে তানজিম সাকিবের। আর এ অভিষেক ম্যাচেই দুর্দান্ত পারফরমেন্স দেখিয়েছেন ডান হাতি ফাষ্ট বোলার। প্রথম ওভারেই ভারতের অধিনায়ক রুহিত শর্মাকে আউট করার পর শেষ ওভারেও মুন্সিয়ানার পরিচয় দিয়ে দৃষ্টি কেড়েছেন। ওয়ানডেতে অভিষেক কিন্তু সে জড়তাটুকু নজরে আসেনি তার পারফরমেন্সে।


এ ম্যাচে বাংলাদেশ প্রথম ব্যাটিং করে সংগ্রহ করেছিল ২৬৫ রান ৮ উইকেটে। যার মধ্যে অসাধারন ব্যাটিং করেছেন অধিনায়ক সাকিব আল হাসান। খেলেন ৮৫ বলে ৮০ রানের ইনিংস। এ ছাড়া ইনফর্ম ব্যাটসম্যান তৌহিদ রিদয়ের ৫৪ রানের উপর ভর করে বাংলাদেশ প্রাথমিক বিপর্যয় কাটিয়ে ওঠে। পরে নাসুম, মেহেদিদের দ্বায়িত্বপূর্ণ ব্যাটিংয়ে ওই রান করেছিলেণ তারা। ভারতের শার্দুল ঠাকুর নেন তিন উইকেট।


এরপর ব্যাটিংয়ে নেমে বাংলাদেশের বোলারদের সম্মুখে সুচনা থেকেই ধুকতে থাকে ভারতীয় ব্যাটসম্যান। প্রথম ওভারে রুহিত শমা ক্যাচ তুলে দিয়ে আউট হওয়ার পর তানজিমের দ্বিতীয় ওভারে আউট করে দেন তিলক ভার্মাকে। তবে ক্রিজে অবিচল ছিলেন শবনম গিল। তার করা সেঞ্চুরী (১২১) রানের উপর ভর করে জয়ের দিকেই এগুচ্ছিল ভারত। কিন্তু শেষের দিকে বাংলাদেশের বোলারদের নিখুত বোলিংয়ের সামনে এক বল হাতে রেখেই অলআউট হয়ে যায় ভারত ২৫৯ রানে। মুস্তাফিজ নেন তিন উইকেট। এছাড়া তানজিম ও  মেহেদি হাসান নেন দুটি করে উইকেট। এটা ভারতের বিপক্ষে বাংলাদেশের অষ্টম জয়।  

শেয়ার করুন