২৫ মে ২০১২, শনিবার, ০৮:০৬:১০ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের ১২৫তম জন্মবার্ষিকী অপরাধী যত প্রভাবশালীই হোক শাস্তি তাকে পেতেই হবে- ওবায়দুল কাদের মানুষের ক্ষতি যারা করবে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ অব্যাহত থাকবে- প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সাবেক আইজিপি বেনজির আহমেদের সম্পত্তি ক্রোকের আদেশ মেয়াদোত্তীর্ণ নৌযান ও নদী দখল-দূষণের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ুন - পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. হাছান মানবাধিকার লঙ্ঘনকারীদের শান্তিরক্ষা মিশন থেকে বাদ দেয়া হবে- ডোজারিক গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার দাবিতে গণতান্ত্রিক বাম ঐক্যের সমাবেশ হেলিকপ্টার দূর্ঘটনায় ইরানের প্রেসিডেন্ট সহ অন্যান্যদের মৃত্যুতে বিএনপির শোক ভারতে ঘুরতে যেয়ে বাংলাদেশের সংসদ সদস্য খুন তামাকমুক্ত লক্ষ্য অর্জনে শক্তিশালী তামাককরের বিকল্প নেই


রাজধানীর নিউ সুপার মার্কেটসহ বিভিন্ন মার্কেটে অগ্নিকান্ডের ঘটনা
প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য ‘দায়িত্বহীন’ - মির্জা ফখরুল
বিশেষ প্রতিনিধি
  • আপডেট করা হয়েছে : ১৬-০৪-২০২৩
প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য ‘দায়িত্বহীন’ - মির্জা ফখরুল


রাজধানীর নিউ সুপার মার্কেটসহ বিভিন্ন মার্কেটে অগ্নিকান্ডের ঘটনা সম্পর্কে প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য ‘দায়িত্বহীন’ বলে মন্তব্য করেছেন মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

শনিবার ইস্কাটন গার্ডেনে লেডিস ক্লাবে জিয়াউর রহমান ফাউন্ডেশনের এক ইফতার অনুষ্ঠানে বিএনপি মহাসচিব এ্ই মন্তব্য করেন।

তিনি বলেন, ‘‘ আজকে যিনি জোর করে ক্ষমতা দখল করে আছে প্রধানমন্ত্রীৃ তিনি আমাকে প্রায় দায়ী করেন এবং ওবায়দুর কাদের(আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক)ও বলেন যে, আমরা নাকী সারাক্ষন মিথ্যা কথা বলতে থাকি। অথচ আজকে প্রধানমন্ত্রী হয়ে তিনি প্রকাশ্যে যে দায়িত্বহীনতার পরিচয় দিলেন.. আগুন যে লাগছে আপনার সেই আগুনগুলোর পেছনে বিএনপি আছে কিনা তা খতিয়ে দেখতে হবে। কত দায়িত্বহীনতার কথা। একজন প্রধানমন্ত্রী তার উচিত ছিলো যে শক্ত করে বলা যে, এটার একটা নিরপেক্ষ তদন্ত করে তার ব্যবস্থা নেয়া হবে। সেটা তো করছেন না। করছেন না এজন্য যে, আগে থেকেই বলে দিচ্ছে এটার সঙ্গে বিএনপি জড়িত আছে কিনা সেটা দেখতে হবে।”

ফখরুল বলেন, ‘‘ অর্থাত আগেই বলে দিচ্ছেন যারা তদন্ত করবে বা করতে পারে যে, ওই দিকে দেখতে হবে। আগুলটা তিনি ওই দিকে দেখাচ্ছে। অর্থাত উদ্দেশ্য একটাই যেভাবেই হোক বিএনপিকে জড়িত করে তাকে সেই দোষী সাব্যস্ত করা।”

শনিবার গণভবনে আওয়ামী লীগের স্থানীয় সরকার ও জনপ্রতিনিধি মনোনয়ন বোর্ডের সভায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রাজধানীর বিভিন্ন মার্কেটে আগুনের সূত্রপাত ষড়যন্ত্র বা বিএনপি-জামায়াত জড়িত কিনা তা খতিয়ে দেখার নির্দেশ দিয়েছেন।

মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, ‘‘ আমাদের বক্তব্য খুব পরিস্কার যে কথাটা সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল বলেছেন যে, এই দেশে আগুন সন্ত্রাসের হোতা হচ্ছেন আপনারা, সন্ত্রাসের হোতা হচ্ছে আওয়ামী লীগ। আজকে নয়, ১৯৭২ সালের পর থেকেই তারা দীর্ঘ তিন বছর-চার বছর এদেশের সন্ত্রাসের মধ্য দিয়ে সমস্ত ভিন্নমত যারা অবলম্বন করছিলেন, দেশপ্রেমিক যারা ছিলেন তারা আওয়ামী লীগের দুর্নীতির বিরুদ্ধে দাঁড়িয়েছিলেন তাদেরও কিন্তু এ্ভাবে নিশ্চিহ্ন করার চেষ্টা করা হয়েছে।”

‘‘ তখনও আগুন লাগানো হয়েছে, তখনও বিরোধী দলকে নির্মূল করার চেষ্টা করা হয়েছে এবং শেষে না পেরে একদলীয় শাসনব্যবস্থা বাকশাল প্রতিষ্ঠা করার চেষ্টা করেছিলেন। সে কথাগুলো আমরা  ভুলে যায়নি। আজকে একইভাবে একই লক্ষ্যে একই কায়দায় ওই একদলীয় বাকশালী শাসন ব্যবস্থা করবার জন্য তারা কাজ করছেন।”

এই অবস্থা থেকে উত্তরণে জনগনকে সঙ্গে নিয়ে এই সরকারের বিরুদ্ধে দূর্বার আন্দোলনের লক্ষ্যে সকলকে ‘ঘুরে দাঁড়ানো’র আহ্বান জানান তিনি।

জিয়াউর রহমান ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক ফরহাদ হালিম ডোনারের সভাপতিত্বে ইফতার মাহফিলে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আবদুল মঈন খান, নজরুল ইসলাম খান, এএসএম আবদুল হালিম, সৈয়দ মোয়াজ্জেম আলাল, আফম ইউসুফ হায়দার, এবিএম ওবায়দুল ইসলাম, অধ্যাপক হারুন আল রশিদ প্রমূখ বক্তব্য রাখেন। 


শেয়ার করুন